.বিডি সংবাদ একাত্তর ডেস্ক =============  সৌদি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আজ (৫ মে ২০২০) করোনা প্রতিরোধে সরকারের নেয়া বিভিন্ন পদক্ষেপ না মানলে এর জন্য জরিমানা ও সাজার বিস্তারিত আইন প্রকাশ করেছে।

যা নিম্নরুপঃ
১। যদি কোন ব্যক্তি নিজে বা প্রতিষ্ঠান কিংবা প্রতিষ্ঠানে কর্মরত কোন কর্মী করোনা প্রতিরোধে সরকারের নেয়া বিভিন্ন পদক্ষেপ না মেনে চলেন তাহলে সর্বনিম্ন এক হাজার রিয়াল হতে সর্বোচ্চ এক লক্ষ রিয়াল কিংবা সর্বনিম্ন এক মাসের জেল হতে সর্বোচ্চ এক বছরের জেল অথবা জেল জরিমানসহ উভয় দন্ডে দন্ডিত করা হবে। প্রতিষ্ঠান হলে সেই প্রতিষ্ঠানকে সর্বোচ্চ ছয় মাসের জন্য বন্ধ করে দেয়া হবে।
উপরোক্ত আইন বারংবার ভংগ করলে সাজা ও জরিমানার পরিমান দ্বিগুন হবে।

২। কারফিউর তাসরীহকে যারা বর্নীত অনুমোদিত কাজ/ উদ্দেশ্য ছাড়া ভিন্ন কাজে ব্যবহার করবে তাদের সর্বনিম্ন দশ হাজার রিয়াল হতে সর্বোচ্চ এক লক্ষ রিয়াল কিংবা সর্বনিম্ন এক মাসের জেল হতে সর্বোচ্চ এক বছরের জেল অথবা জেল জরিমানসহ উভয় দন্ডে দন্ডিত করা হবে। পাশাপাশি কারফিউর তাসরীহ প্রত্যাহার করে নিয়ে নেয়া হবে।
৩। কোয়ারিন্টিন ও আইসোলেশন আইন ভংগ করলে সর্বোচ্চ দুই লক্ষ রিয়াল পর্যন্ত জরিমানা কিংবা সর্বোচ্চ দুই বছর সাজা অথবা জেল জরিমানসহ উভয় দন্ডে দন্ডিত করা হবে।
উপরোক্ত আইন বারংবার ভংগ করলে সাজা ও জরিমানার পরিমান দ্বিগুন হবে।

(স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এর প্রকাশিত এই আইনগুলো ফেইসবুকে প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ দূতাবাস রিয়াদের আইন সহকারি মামুনুর রশিদ)

৪। আক্রান্ত কোন ব্যক্তি ইচ্ছাকৃতভাবে ভাইরাস ছড়ালে কিংবা ছড়ানোর চেষ্টা করলে সর্বোচ্চ ৫ লক্ষ রিয়াল পর্যন্ত জরিমানা কিংবা সর্বোচ্চ ৫ বছর সাজা অথবা জেল জরিমানসহ উভয় দন্ডে দন্ডিত করা হবে।
উপরোক্ত আইন বারংবার ভংগ করলে সাজা ও জরিমানার পরিমান দ্বিগুন হবে।

৫। প্রকৃতপক্ষে যার তাসরীহ (কারফিউ পাস) প্রয়োজন নেই তাকে তা পাইয়ে দিতে যে সহায়তা করবে কিংবা পাইয়ে দিবে তাকে সর্বনিম্ন দশ হাজার রিয়াল হতে সর্বোচ্চ এক লক্ষ রিয়াল কিংবা সর্বনিম্ন এক মাসের জেল হতে সর্বোচ্চ এক বছরের জেল অথবা জেল জরিমানসহ উভয় দন্ডে দন্ডিত করা হবে।
উপরোক্ত আইন বারংবার ভংগ করলে সাজা ও জরিমানার পরিমান দ্বিগুন হবে।

৬। কেউ যদি করোনা ভাইরাস সম্পর্কে অর্ধসত্য কিংবা মিথ্যা তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করে ভীতির সঞ্চার করে কিংবা জনগণকে আইন ভাংগতে উৎসাহ প্রদান করে সর্বনিম্ন এক লক্ষ রিয়াল হতে সর্বোচ্চ দশ লক্ষ রিয়াল কিংবা সর্বনিম্ন এক বছরের জেল হতে সর্বোচ্চ ৫ বছরের জেল অথবা জেল জরিমানসহ উভয় দন্ডে দন্ডিত করা হবে।
উপরোক্ত আইন বারংবার ভংগ করলে সাজা ও জরিমানার পরিমান দ্বিগুন হবে।

৭। উপরোক্ত আইন ভংগকারী যদি কোন বিদেশী হয় তাহলে তাকে সাজা ভোগ ও জরিমানা আদায় সাপেক্ষ সৌদি আরব থেকে নিজ দেশে ডিপোর্ট করা হবে এবং ভবিষ্যতে সৌদিতে প্রবেশ করতে দেয়া হবেনা।

৮। কোন অপরাধ যদি উপরোক্ত সাজা ও জরিমানার আওতায় না এসে থাকে তাহলে প্রচলিত আইন অনুযায়ী তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
==================
*কেউ যদি আরোপিত শাস্তির বিরুদ্ধে আপিল করতে চায় তাহলে বিচার মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ নির্দিষ্ট কমিটিতে সাজা ও জরিমানার নোটিশ পাওয়ার দশ দিনের মধ্যে আপিল করতে পারবে।
* কারো জন্য জেলের সাজা আরোপিত হলে তার জেলের সাজা করোনা মহামারি শেষ হয়ে গেলে কার্যকর করা হবে। যেখানেই থাকুন আইন মেনে চলুন।

সূত্র আইন সহকারী  মামুনুর রশিদ বাংলাদেশ দূতাবাস, রিয়াদ নিউজটি সেয়ার করুন

০৫/০৫/২০২০#করোনা #ভাইরাস #সৌদি #প্রবাসী #মক্কা#Corona #COVID19 #KSA #Expats #StayatHome

SHARE