রফিক চৌধুরী জেদ্দা থেকে ————বাংলাদেশ কালচারাল ফোরাম জেদ্দার পিঠা উৎসব আজ ৭ ফেব্রুয়ারী

বিদেশের মাটিতে প্রবাসী বাংলাদেশিদের একটু আনন্দ দিতে সৌদিআরবের জেদ্দায় পিঠা উৎসব অনুষ্ঠিত হতে চলেছে। বাংলাদেশ কালচারাল ফোরামের একঝাঁক নবীন প্রবীণএর অক্লান্ত পরিশ্রমে  ইতি মধ্যে পিঠা উৎসব এর  সকল প্রস্তুতি সম্পন্য হয়েছে

সৌদি আরব এর এই প্রথম  বারেরর মত  সৌদি আরব এর সামাজিক সাংস্কৃতিক সাহিত্য,  সাংবাদিক সুশীল সমাজের তরুণ  ও নবীন আর প্রবিন এর সমন্বয়েে  প্রবাসী ভাই বোনদের  নিয়ে গঠিত বাংলাদেশ কালচারাল ফোরামের প্রতি টি সদস্যও নেতৃবৃন্দের  অক্লান্ত পরিশ্রম  সুন্দরও সুশৃঙ্খল আয়োজনে  প্রস্তুত  বহুল আলোচিত  পিঠা উৎসব  বিকাল তিনটা থেকে শুরু  হয়ে চলবে রাত তিনটা পযন্ত,,জেদ্দার সমুদ্র সৈকতে নৈসর্গিক সৌন্দর্যেে  ঘেরা আবহুর নায়েফ ভিলাতে এই উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে।

সংগঠনএর সম্মানিত সভাপতি জনাব আলমগীর হোসেন ও সম্মানিত সাধারন সম্পাদক জনাব হানিছ সরকার উজ্জ্বল  ও বাস্তবায়ন কমিটির  সম্মানিত আহ্বায়ক আমজাদ হোসেন  ও সদস্য সচিব  আলাউদ্দিন।।   বাংলাদেশ কালচারাল ফোরামের সকল নেতৃবৃন্দে ও সদস্য সহ  সর্বস্তরের প্রবাসী ভাই বোনদের আমন্ত্রণ জানান এবং তিনারা বলেন এই পিঠা উৎসব  বাংলার ঐতিহ্য সুতারাং এই উৎসব আপনার আমার সবার। এই পিঠা উৎসব সবার জন্য ।   অতএব আপনারা যে যেখানেই থাকুন না কেন এতে আপনিও  আমন্ত্রিত আমরা বিদেশে মাটিতে দেশের ঐতিহ্য কে তুলে ধরাই আমাদের  বাংলাদেশ কালচারাল ফোরামের একমাত্র  উদ্দেশ্য ।      এর পূর্বেে সংক্ষিপ্ত বার্তায় উক্ত      সংগঠনের সম্মাানিত সভাপতি আলমগীর হোসেন এবং সম্মমানিত  সাধারণ সম্পাদক হানিস সরকার উজ্জ্বল বলেন, ‘আপনারা জানেন পৃথিবী সেরা অতিথি পরায়ণ জাতি বাঙালির সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ পিঠা-পুলি উৎসব। বাঙালিরা বিভিন্ন রঙ ও স্বাদের হরেক রকম পিঠা-পুলি, পায়েশ ও ফিরনী বানিয়ে অতিথি, পাড়া প্রতিবেশীকে আপ্যায়ন করে।

তারা বলেন, সেই গৌরব ও অহংকারের সংস্কৃতিকে প্রবাসে বেড়ে ওঠা নতুন প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দিতে প্রতিবারের ন্যায় এবারও বাংলাদেশ কালচারাল ফোরাম জেদ্দা এই পিঠা উৎসবের আয়োজন করতে যাচ্ছে।

অনুষ্ঠানে বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক আমজাদ হোসেন ও আলাউদ্দন কে সদস্য সচিব করে ৭১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়েছে।

সূত্র বিডি সংবাদ একাত্তর 

SHARE