শিরোনাম
  মধুখালী উপজেলার দুটি ইউনিয়ন নির্বাচনে বিএনপি’র বিশাল শোডাউন।       মধুখালী ব্যবসায়ীদের মরার উপর খরার ঘাঁ।       দুর্গা পুজা সকল ধর্মের লোকদের উৎসব প্রধানমন্ত্রীর এমন বক্তব্যে-নায়ক আলমগীর       মধুখালীতে শিক্ষা অফিসারের উদ্যোগে আকাশ আমার পাঠশালা অনলাইন শিক্ষা পদ্ধতি ব্যাপক জনপ্রিয়।       আব্দুর রহমানকে মন্ত্রী হিসেবে দেখতে চাই       ৭নং জিরি ইউনিয়নের দক্ষিণ জিরি -মহিরা হিখাইন – মালিয়ারা সড়কের বেহাল অবস্থা, দেখার কেউ নেই।       শ্রীমঙ্গলে সাতগাঁও প্রবাসী ফোরামের কার্যালয় উদ্বোধন।       মিন্নীই ছিল তার স্বামী রীফাত শরিফ হত্যার মুল পরিকল্পনা কারী, আদালতে দোষ স্বীকার,       পবিত্র মক্কায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে দোয়া ও আলোচনা সভা       জেদ্দা সুক সাথী মার্কেট বাংলাদেশী ব্যাবসায়ী কমিনিউটির – সৌদি জাতীয় দিবস উদযাপন-    

আজ মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ০৯:০৮ অপরাহ্

বিডি সংবাদএকাত্তর ডেস্ক   হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ দ্বিতীয় ব্যক্তি, যিনি সেনাপ্রধান থেকে রাষ্ট্রপ্রধান হয়েছিলেন। দেশের ইতিহাসে প্রথম সেনাপ্রধান থেকে রাষ্ট্রপ্রধান হন শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান। অতঃপর দ্বিতীয় ব্যক্তি হিসেবে এরশাদ সেনাপ্রধান থেকে রাষ্ট্রপ্রধান তথা প্রেসিডেন্ট হন।

এইচ এম এরশাদ ১৯৫২ সালে সেনাবাহিনীতে যোগদান করেন। ’৭১-এ মুক্তিযুদ্ধের পর তিনি ’৭৩ সালে দেশে ফিরে আসেন। জিয়াউর রহমানের শাসনামলে তিনি সেনাবাহিনীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন। জিয়াউর রহমান প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর এরশাদকে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের চেয়ারম্যান করা হয়।

হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ দ্বিতীয় ব্যক্তি, যিনি সেনাপ্রধান থেকে রাষ্ট্রপ্রধান হয়েছিলেন। দেশের ইতিহাসে প্রথম সেনাপ্রধান থেকে রাষ্ট্রপ্রধান হন শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান। অতঃপর দ্বিতীয় ব্যক্তি হিসেবে এরশাদ সেনাপ্রধান থেকে রাষ্ট্রপ্রধান তথা প্রেসিডেন্ট হন।

এইচ এম এরশাদ ১৯৫২ সালে সেনাবাহিনীতে যোগদান করেন। ’৭১-এ মুক্তিযুদ্ধের পর তিনি ’৭৩ সালে দেশে ফিরে আসেন। জিয়াউর রহমানের শাসনামলে তিনি সেনাবাহিনীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন। জিয়াউর রহমান প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর এরশাদকে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের চেয়ারম্যান করা হয়।

জিয়াউর রহমান এর কিছুদিন পরই এরশাদকে দেশের সেনাপ্রধান হিসেবে নিয়োগ করেন। জিয়াউর রহমানের মৃত্যুর পর এইচ এম এরশাদ সে সময়ের নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট বিচারপতি আবদুস সাত্তারকে অনেকটা বাধ্য করেন ক্ষমতা ছাড়তে। ’৮২ সালের ২৪ মার্চ এরশাদের কাছে ক্ষমতা দিয়ে বিদায় নেন বিচারপতি আবদুস সাত্তার। সামরিক আইন জারি করে সামরিক আইন প্রশাসক হন এরশাদ। প্রেসিডেন্টসিয়াল শাসনব্যবস্থায় তিনি ১৯৮৬ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্ব›িদ্বতা করে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন।

দুর্নীতির বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষণা করে ক্ষমতা গ্রহণ করে এইচ এম এরশাদ হঠাৎ রাজনীতির দিকে ঝুঁকে পড়েন। জিয়াউর রহমানের আদলে তিনি রাজনীতিতে প্রবেশের লক্ষ্যে ১৯৮৪ সালে ১৮ দফা ঘোষণা করে বাস্তবায়ন পরিষদ তৈরি করেন। ওই বছরই বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সিনিয়র রাজনীতিকদের নিয়ে গঠন করেন জনদল। কিছু দিন পর জনদল পরিবর্তন করে তৈরি করেন জাতীয় ফ্রন্ট। অতঃপর জাতীয় পার্টি। আন্দোলনের মুখে ১৯৮৬ সালের একপাক্ষিক পাতানো নির্বাচনে জাতীয় পার্টি সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়। বিরোধী দল হয় আওয়ামী লীগ। আন্দোলনের মুখেই ১৯৮৮ সালে ওই সংসদ ভেঙে দিয়ে আবারও জাতীয় নির্বাচন দেন। ওই নির্বাচনে অন্য কোনো দল অংশ নেয়নি। তবে আ স ম রবের নেতৃত্বে জাতীয় সংসদে বিরোধী দল গঠন করা হয়। একপর্যায়ে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি ঐক্যবদ্ধভাবে ‘হটাও এরশাদ বাঁচাও দেশ’ ¯েøাগান নিয়ে আন্দোলন শুরু করে এরশাদের বিরুদ্ধে। ৯ বছরের শাসনের অবসান ঘটিয়ে ১৯৯০ সালের ৬ ডিসেম্বর ক্ষমতা ছাড়তে বাধ্য হন এরশাদ। ১৯৯১ সালের নির্বাচনে জয়লাভ করে বিএনপি সরকার গঠনের পর সংসদের বিরোধী দল আওয়ামী লীগের চাপে এরশাদকে গুলশানের গৃহবন্দী থেকে কারাগারে নেয়া হয়। দীর্ঘ ৬ বছর কারাভোগের পরে তিনি কারামুক্ত হন। অবশ্য আওয়ামী লীগের শাসনামলে ১৯৯৯ সালে তিনি দ্বিতীয়বার কারাভোগ করেন।

দুর্নীতির অভিযোগে বেশ কয়েকটি মামলায় তার সাজাও হয়। এখনো কয়েকটি মামলা বিচারাধীন রয়েছে। এরশাদের জাতীয় পার্টি ’৯১ সালে সংসদ নির্বাচনে অংশ নিয়ে ৩৫টি আসন পায়। ১৯৯৬ সালের নির্বাচনে পায় ৩২ আসন। মূলত ১৯৯৬ সালে জাতীয় পার্টির সমর্থনে সরকার গঠন করে আওয়ামী লীগ। ২১ বছর পর দলটি ক্ষমতায় আসে। ২০০৮ সালের ডিসেম্বরের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের সঙ্গে মহাজোটের হয়ে লড়ে সংসদে যায় জাতীয় পার্টি। একই পথে হাঁটে ২০১৪ সালের নির্বাচনেও। একদলীয় নির্বাচনে সংসদে গৃহপালিত বিরোধী দল হয় জাতীয় পার্টি। ২০১৮ সালের নির্বাচনে জাতীয় পার্টি সরকারের সঙ্গে জোট করে নির্বাচন করলেও সংসদে বিরোধী দল হয় জাতীয় পার্টি। আর বিরোধী দলের নেতা হন হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।

 
 
 

আরও পড়ুন

মধুখালী উপজেলার দুটি ইউনিয়ন নির্বাচনে বিএনপি’র বিশাল শোডাউন।

মধুখালী ব্যবসায়ীদের মরার উপর খরার ঘাঁ।

দুর্গা পুজা সকল ধর্মের লোকদের উৎসব প্রধানমন্ত্রীর এমন বক্তব্যে-নায়ক আলমগীর

মধুখালীতে শিক্ষা অফিসারের উদ্যোগে আকাশ আমার পাঠশালা অনলাইন শিক্ষা পদ্ধতি ব্যাপক জনপ্রিয়।

আব্দুর রহমানকে মন্ত্রী হিসেবে দেখতে চাই

৭নং জিরি ইউনিয়নের দক্ষিণ জিরি -মহিরা হিখাইন – মালিয়ারা সড়কের বেহাল অবস্থা, দেখার কেউ নেই।

শ্রীমঙ্গলে সাতগাঁও প্রবাসী ফোরামের কার্যালয় উদ্বোধন।

মিন্নীই ছিল তার স্বামী রীফাত শরিফ হত্যার মুল পরিকল্পনা কারী, আদালতে দোষ স্বীকার,

পবিত্র মক্কায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে দোয়া ও আলোচনা সভা

জেদ্দা সুক সাথী মার্কেট বাংলাদেশী ব্যাবসায়ী কমিনিউটির – সৌদি জাতীয় দিবস উদযাপন-

অন্যের স্ত্রী নিয়ে পালিয়ে গেলেন ফ্রান্স আওয়ামী লীগ এর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রানা চৌধুরী। হতবাক কমিউনিটি

প্রবাসীর স্ত্রীকে ভাগিয়ে নিলো তিন সন্তানের জনক মধুখালীর পোল্ট্রি ফিড বিক্রেতা রুমি।

শুভেচ্ছা ব্যান্ডের ভার্চুয়াল লাইভ শো তে আজ আসছেন সুপার হিট নায়িকা সাহানুর ও চ্যানেল আই সেরা কন্ঠের নান্নু-আজ রাত ৬-৩০মিঃ

সালাউদ্দিন সরকার সভাপতি, নুর আলম সাধারণ সম্পাদক ও রবিউল ইসলাম টিটুকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে কান্দারা যুবদল ঘোষণা,

জাতীয়তাবাদী প্রবাসী বিএনপি পরিবার ওয়ার্ল্ড অনলাইন এর আত্বপ্রকাশ।

যুবদলের যূগ্ন আহ্বায়ক হুমায়ুন কবির এর মায়ের মৃত্যুতে বি এন পির উপদেষ্টা আলহাজ্ব আব্দুর রহমান এর শোক প্রকাশ।

মির্জা মিলনের জনপ্রিয়তায় ভীত হয়ে অপপ্রচার, প্রতিবাদে মিলনের সংবাদ সম্মেলন

দুর্গা পুজা সকল ধর্মের লোকদের উৎসব প্রধানমন্ত্রীর এমন বক্তব্যে-নায়ক আলমগীর

বাংলাদেশ বিমানকে কোটি টাকা জরিমানা করেছে সৌদি আরব।

চট্টগ্রাম প্রবাসী ক্লাবের উদ্যোগে ওমান প্রবাসী জাফর, বাহরাইন প্রবাসী আজাদের ক্রসফায়ারে হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন।

 

Top
ব্রেকিং নিউজ :
Shares